শেষ অর্থবছরে জাপানের বাণিজ্য ঘাটতি বেড়েছে

  • sahin rahman
  • April 21, 2014
  • Comments Off on শেষ অর্থবছরে জাপানের বাণিজ্য ঘাটতি বেড়েছে

japan-trade-dificitশেষ অর্থবছরে বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ অর্থনীতির দেশ জাপানের বাণিজ্য ঘাটতি রেকর্ড পরিমাণে বেড়েছে। সোমবার দেশটির অর্থমন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মার্চ শেষে তাদের বাণিজ্য ঘাটতি ৭০ শতাংশ বেড়ে পৌঁছেছে ১৩ দশমিক ৭৫ ট্রিলিয়ন ইয়েন বা ১৩ হাজার ৪০০ কোটি ডলারে। এর মধ্যে শেষ মাসে বেড়েছে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় চারগুণ। খবর বিবিসি ও ইউএসএ টুডের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্চশেষে দেশটির রপ্তানি আগের বছরের তুলনায় ১০ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৯ হাজার কোটি ডলারে। একই সময়ে আমদানি ১৭ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়ে পৌঁছেছে ৮২ হাজার ৫০০ কোটি ডলারে। এর মধ্যে শুধু মার্চ মাসে ঘাটতি হয়েছে ১ হাজার ৪১০ কোটি ডলার।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০১১ সালে ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে দুর্ঘটনার পর জাপানের মূল্যবান জ্বালানি তেল আমদানি অনেক বেড়ে যায়। কারণ ফুকুশিমার পারমাণবিক কেন্দ্র জাপানের জ্বালানি চাহিদার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ পূরণ করত। এরপর ২০১২ সালে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের নেওয়া মুদ্রানীতি ও সরকারি ব্যয় বৃদ্ধির পদক্ষেপ নিলেও বাণিজ্য ঘাটতি বাড়া ছাড়া কমেনি। বরং এই সময়ে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইয়েনের প্রায় ২৫ শতাংশ হারে মূল্যপতন ঘটে।

এছাড়া ২০১৩ অর্থবছরে  জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটি তাদের  লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী তেল ও গ্যাস রপ্তানি করতে পারেনি।  মূলত এই কারণেই জাপানের বাণিজ্য ঘাটতি আগের তুলনায় অনেকগুণ বেড়ে গেছে জানিয়েছেন তারা।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের মার্চে ভয়াবহ ভূমিকম্প ও সুনামিতে জাপানের ফুকুশিমা পরমাণু চুল্লিতে বিপর্যয় ঘটে। ঝুঁকি এড়াতে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহার হওয়া ৫৪টি পরমাণু চুল্লি বন্ধ করে দিতে হয়ে জাপান সরকারকে। এতে দেশটির জ্বালানি আমদানি ব্যাপক হারে বেড়ে যায়।

এস রহমান/