গণমাধ্যম কর্মীদের ওপর হামলাকারীদের বিচারের দাবি

একুশে টেলিভিশন

একুশে টেলিভিশনসম্প্রতি মিডফোর্ড হাসপাতালে ইন্টার্নি চিকিৎসকরা গণমাধ্যম কর্মীদের ওপর হামলা ও নির্যাতন করেছে। এসব হামলাকারী ও ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচারের দাবি জানিয়েছে টিবি ক্যামেরাজার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন।

হামলাকারীদের বিচার না হলে স্বাস্থমন্ত্রনালয় ঘেরাওসহ কঠিন কর্মসূচি দেওয়া হবে বলেও জানায় সংগঠনের বক্তারা।

সোমবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংগঠনের আয়োজিত এক মানববন্ধনে সংগঠনের বক্তারা এই দাবি জানান।

মানবন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের সিনিয়র ডাক্তারা ব্যাবসায়িক হয়ে পড়েছে। আর তাদের জায়গা দখল করে আছে ইন্টার্নি ডাক্তারা। ফলে সরকারি হাসপাতালের প্রতি মানুষ আস্থা হারাচ্ছে, তাই বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতালে বিদেশি ডাক্তাররা সেবা দিচ্ছে। মানুষ ভালো সেবা পাওয়ার জন্য সেসব হাসপাতালে যাচ্ছে।

তারা বলেন, সাংবাদিকদের অপরাধ কোথায়? সত্যের পক্ষে কথা বলা কি অপরাধ? যদি অপরাধ হয়ে থাকে দেশে আইন-শৃংখলা বাহিনী আছে। তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হবে। কিন্তু চিকিৎসকরা কেন তাদের ওপর হামলা চালাবে?

এ সময় অন্যান্য সাংবাদিকরা চিকিৎসকদের এই কর্মকাণ্ডের জন্য তাদের সতর্ক করে বলেন, আপনাদের কাজ চিকিৎসা সেবা দেওয়া সন্ত্রাসী কর্মকণ্ড ছেড়ে আপনাদের পেশায় মনোনিবেশ করুন। না হয় আপনাদের অনেক কুকর্মের কথা আমাদের কাছে আছে যা এতদিন কিছু বলিনি। আপনারা শান্ত না হলে জনসম্মুখে তা তুলে ধরা হবে

স্বাস্থমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী পালিয়ে বেড়াচ্ছে উল্লেখ্য করে তারা বলেন, আমরা তাদের কাছে গিয়েছিলাম কিন্তু উনাদেরকে (মন্ত্রী) পায়নি। তারা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এইভাবে পালিয়ে বেড়িয়ে কোন সমাধান হবে না।

স্বাস্থমন্ত্রী ও ত্বথ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা আমাদের নিয়ে বসুন। হামলার সুষ্ট তদন্ত করুন। তারপর দেখুন আসলে কি ঘঠেছে সেদিন।

মানববন্ধনে টিবি ক্যামেরাজার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সদস্য ও বিভিন্ন টিবি ক্যামেরা সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

জেইউ/সাকি