আওয়ামী সন্ত্রাসীরাই যুবদল নেতাকে কুপিয়েছে: ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
ফাইল ফটো

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা যুবদলের সভাপতি দুলালকে আওয়ামী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে  মারাত্মকভাবে আহত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

অভিযুক্ত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রশাসন কোনো আইনী ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো সেনবাগ উপজেলা ছাত্রদল নেতা রুবেল ও রাজুকে গ্রেপ্তার করেছে অভিযোগ করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের এই সব বর্বরোচিত ও অমানবিক ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে শনিবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব এ অভিযোগ করেন।

আহত দুলাল এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন উল্লেখ করে অবিলম্বে  দুলালের হামলাকারী আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান ফখরুল।

এছাড়া সেনবাগ উপজেলা ছাত্রদল নেতা রুবেল ও রাজুর নি:শর্ত মুক্তি দাবি করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিরোধী দলকে দমন করার হীন চক্রান্তের অংশ হিসেবে বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদেরকে ধারাবাহিকভাবে হত্যা ও জখম করা হচ্ছে। তারা দেশব্যাপী তাণ্ডব সৃষ্টির এক মহাযজ্ঞে লিপ্ত হয়েছে। আর এসব করার উদ্দেশ্যই হচ্ছে-ক্ষমতা যাতে হাতছাড়া না হয়।

তিনি বলেন, নোয়াখালী জেলাধীন সেনবাগ উপজেলা যুবদল সভাপতি দুলালের ওপর হামলা চালিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে, ছাত্রদল নেতা রুবেল ও রাজুকে বিনা কারণে গ্রেপ্তার সবই বর্তমান অবৈধ সরকারের ধারাবাহিক অপকর্ম।

মির্জা ফখরুল সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, দমন-পীড়ন চালিয়ে বিরোধী দলের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে থামানো যাবেনা, বরং নির্যাতনের মাত্রা যতই বৃদ্ধি করা হবে ততই বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীরা সুসংগঠিত হয়ে জনগণকে সাথে নিয়ে চলমান আন্দোলনকে আরও বেগবান, গতিশীল ও শক্তিশালী করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হবে।

এমআর/সাকি