স্বর্ণের নাড়ি-ভুড়ি!

golden buiskitপরিপাকতন্ত্রের ক্ষুত্রান্ত্র ও বৃহদান্ত্র পুরোটা জুড়েই পাওয়া গেছে ১২টি স্বর্ণের বিস্কুট। তাই একে স্বর্ণের নাড়ি-ভুড়িই বলা যায়। সম্প্রতি ৬৩ বছর বয়সী এক ব্যবসায়ীর দেহে অস্ত্রোপচার চালিয়ে এই স্বর্ণের বিস্কুট উদ্ধার করেছেন চিকিৎসকেরা। তারা বলছেন, এগুলোর ওজন ৩৯৬ গ্রাম। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সিঙ্গাপুর থেকে ভারতে পাচার করে আনার জন্য ১০ দিন আগে ওই স্বর্ণ পাচারকারী বিস্কুটগুলো খেয়ে ফেলেন। বিমান বন্দরে কঠোর নিরাপত্তার হাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর জন্য তিনি এই কাজ করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, কয়েকদিন আগে দিল্লির বৃহত্তম শপিং এলাকা চাদনি চকের ওই ব্যবসায়ী তার দেহ থেকে স্বর্ণগুলো বের করার জন্য একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি হন। এরপর চিকিৎসকেরা তার দেহে অস্ত্রোপচার করে এই স্বর্ণের বিস্কুট উদ্ধার করেন।

চিকিৎসক ডা: দাওল শর্মা জানান, ‘আশংকাজনক অবস্থায় ওই ব্যবসায়ী ৯ এপ্রিল ক্লিনিকে ভর্তি হন।  এর আগেও যেহেতু চার বার একই পদ্ধতিতে তার দেহে অস্ত্রপচার করা হয়েছে, তাই এটি ছিল আমাদের জন্য জটিল একটি অপারেশন।

তিনি আরও জানান, সর্বশেষ আমরা একটি টিম গঠন করে স্বর্ণের বিস্কুটগুলো বের করতে সক্ষম হই’। স্বর্ণ ব্যবসায়ী এখন সুস্থ আছেন বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এগুলোর প্রত্যেকটির ওজন ৩৩ গ্রাম। মোট ওজন ৩৯৬ গ্রাম। যার মুল্য প্রায় ১২ লাখ রুপি।

দাওল বলেন, সমস্ত বিষয় পুলিশকে জানানো হলে তাকে আটক করেছে পুলিশ। তবে তার পরিবার বলছে, স্বর্ণ পাচারের বিষয়ে তারা কিছু বলতে পারেন না।

এস রহমান/