ব্যাংকের খরচের সীমা বেঁধে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক

  • Emad Buppy
  • January 16, 2014
  • Comments Off on ব্যাংকের খরচের সীমা বেঁধে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
বাংলাদেশ ব্যাংক

BBব্যাংকের সাজসজ্জা এবং যানবাহন ক্রয়ের ক্ষেত্রে খরচের সীমা বেঁধে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে ব্যাংকগুলো নতুন শাখা স্থাপনের ক্ষেত্রে প্রতি বর্গফুটের জন্য ১ হাজার ৫০০ টাকার অধিক এবং বিদ্যমান শাখা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে প্রতি বর্গফুটের জন্য ১ হাজার টাকার অধিক ব্যয় করতে পারবে না। এছাড়া ৫০ লাখ টাকার অধিক মূল্যের মোটরকার এবং ১ কোটি টাকার অধিক মূল্যের জিপ ব্যাংক-কোম্পানির অর্থে ক্রয় করা যাবে না।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এসব নির্দেশনা দিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

সম্প্রতি ব্যাংক-কোম্পানির অর্থে পর্ষদ চেয়ারম্যান, প্রধান নির্বাহী ও অন্যান্য পদস্থ কর্মকর্তাদের জন্য বিলাসবহুল মোটরগাড়ি ক্রয় এবং ব্যাংক শাখার চাকচিক্যপূর্ণ সাজসজ্জার বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের নজরে এসেছে। এসব সাজসজ্জায় এবং বিলাসবহুল গাড়ি ক্রয়ে ব্যাংকের পরিচালনা ব্যয় বেড়ে যায়। এ কারণে খরচের সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে, ৫০ লাখ টাকার অধিক মূল্যের মোটরকার এবং এক কোটি টাকার অধিক মূল্যের জিপ ব্যাংক-কোম্পানির অর্থে ক্রয় করা যাবে না। তবে, ব্যাংক-কোম্পানির রেমিট্যান্স বহনের কাজে বিভিন্ন নিরাপত্তা সংস্থার ব্যবহৃত নিরাপত্তা-যানবাহনের অনুরূপ গাড়ি ক্রয় করা যাবে। এছাড়া অন্য কোনো ব্যাংক-কোম্পানি বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে লিজ ফাইন্যান্সিং সুবিধা গ্রহণ করে কোনো মোটরগাড়ি সংগ্রহ করা যাবে না।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলো হয়েছে, ব্যাংক-কোম্পানির ব্যবস্থাপনার ওপর আমানতকারী ও ইক্যুইটি যোগানদাতাদের আস্থা বজায় রাখার জন্য বিভিন্ন খাতে ব্যয়ে সাশ্রয়ী প্রবণতা প্রদর্শন বিশেষভাবে গুরত্বপূর্ণ। ব্যয় সাশ্রয়ে আয়-উদ্বৃত্ত বৃদ্ধি করতে সহায়ক হয় এবং ব্যবসার প্রসারের জন্য সুদ, চার্জ বা ফি’র হার হ্রাস প্রতিযোগিতার সক্ষমতা বাড়ায়।

মোটরগাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে আরও যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো হলো-ব্যাংক-কোম্পানির অর্থে ক্রয়কৃত মোটরযান বহরে যানবাহনের সংখ্যার প্রবৃদ্ধি ব্যাংকের জনবল ও অফিস বা শাখা সম্প্রসারণের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ হতে হবে। এ খাতে ব্যয়ের বার্ষিক প্রবৃদ্ধি শতকরা ১০ ভাগের মধ্যে সীমিত রাখতে হবে। সাধারণভাবে পর্ষদ চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহীর জন্য সার্বক্ষণিক গাড়িসহ সকল যানবাহন অন্তত ৫ বছর ব্যবহারের পর প্রতিস্থাপনযোগ্য হবে।

এছাড়া ব্যাংকের মোটরযান বহরের ব্যবহার ও পরিচালনা ব্যয়ের তথ্য ষান্মাসিকভাবে পরিচালনা পর্ষদের সভায় এবং প্রত্যেক বার্ষিক সাধারণ সভায় অবগতি ও পর্যালোচনার জন্য উপস্থাপন করতে হবে।

প্রজ্ঞাপনে ব্যাংকের শাখা সাজসজ্জায় উচ্চব্যয় পরিহারের জন্য অনুসৃতব্য নির্দেশনায় বলা হয়েছে-এখন থেকে নতুন শাখা স্থাপন বা বিদ্যমান শাখা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে শহর শাখার জন্য ৫ হাজার বর্গফুট ও পল্লী শাখার জন্য দুই হাজার বর্গফুট এর অধিক ফ্লোর স্পেস ব্যবহার করা যাবে না।

এছাড়া আইটি সরঞ্জাম ব্যতীত অন্যান্য খাতে (ভল্ট স্থাপন, ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন, অফিস ফার্নিচার, ইলেকট্রিক বা ইলেকট্রনিক ইত্যাদি) নতুন শাখা স্থাপনের ক্ষেত্রে প্রতি বর্গফুটের জন্য ১ হাজার ৫০০ টাকার অধিক ব্যয় করা যাবে না এবং বিদ্যমান শাখা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে প্রতি বর্গফুটের জন্য ১ হাজার টাকার অধিক ব্যয় করা যাবে না। আইটি সরঞ্জাম বাবদ ব্যয়ও যুক্তিসঙ্গত পর্যায়ে রাখতে হবে।

আসবাবপত্র ও অন্যান্য সরঞ্জামে বিলাসিতা বা চাকচিক্যের পরিবর্তে মৌলিক প্রয়োজনের প্রেক্ষিতে পর্যাপ্ত গুণগত মান ও টেকসই হওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এসএই/এআর