রাজশাহীতে থানা হাজতে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

রাজশাহী
রাজশাহী
রাজশাহীর মানচিত্র

রাজশাহীর বোয়ালিয়ায় থানা হাজতে রুহুল আমিন (২২) নামে এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মৃত রুহুল আমিন নগরীর নামো ভদ্রা এলাকার নাজের আলীর ছেলে।

পরে শনিবার দুপুর ১২টায় একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানে হয়েছে।

জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে নগরীর নামো ভদ্রা কাঁচাবাজার এলাকা থেকে ২৫০ গ্রাম গাঁজাসহ বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ রুহুল আমিনকে আটক করে। এরপর থেকে তাকে থানা হাজতে রাখা হয়।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য রুহুল আমিনকে শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতনে রুহুলের মৃত্যু হয়। পরে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে পুলিশ আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছে।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান ভূঁইয়া জানান, রুহুল আমিনকে কোনো ধরনের শারীরিক নির্যাতন করা হয়নি। হাজতে আসামিদের ঘুমানোর জন্য কম্বল রাখা ছিলো। রুহুল আমিন সবার অগোচরে হাজতের টয়লেটে গিয়ে ওই কম্বলের ছেঁড়া অংশ গলায় পেঁচিয়ে ভেনটিলেটরের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

রাত সাড়ে ১২টার দিকে আসামিদের দেখতে গিয়ে এক কনস্টেবল তা টের পান। পরে টয়লেটের দরজা ভেঙ্গে রুহুল আমিনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

সাকি/