নন্দিত-নিন্দিত ঐশ্বরিয়া

ঐশ্বরিয়া ছাড়া যেন কান যেন একেবারেই অর্থহীন। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে আমন্ত্রিত হয়ে সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী পরপর ১২ বছর আন্তর্জাতিক কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচায় হেঁটেছেন। প্রতিবারই আলাদাভাবে নিজেকে উপস্থাপন করে আলোচনা শীর্ষে উঠে আসেন তিনি। কিন্তু ফ্রান্সের কান নগরীতে তিনি তার সৌন্দর্যের দ্যুতি সব সময়েই ছড়িয়েছেন তা নয়।

কোন পোশাকে তিনি সবচেয়ে দ্যুতি ছড়ানো তারকা, আর কোন পোশাকে হয়েছেন সমালোচিত তা নিয়ে একটি প্রতিবেদনে উপস্থাপন করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। আর সেই প্রতিবেদনের আলোকে পাঠকদের জন্য তা উপস্থাপন করছে অর্থসূচক:

কান মাতানো অনিন্দ্য ঐশ্বরিয়া:

2002

এক. ২০০২ সালে ‘দেবদাস’ ছবিতে অনাবদ্য অভিনয়ের সুবাদে তিনি সর্বপ্রথম কান উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন। বুকের কাছে হাত জোড় করা ভঙ্গিমায় হলুদ শাড়ী এবং ভারি স্বণের্র গহনায় সেবার কান মাতিয়ে ছিলেন তিনি।

1111দুই. ২০০৫ এর কানে নিজের ‘লুক’ এর পরিবর্তন আনেন ঐশ্বরিয়া। লাল গালিচায় হাজির হন খোলা চুলে। একটি পুষ্পশোভিত আরমানি গাউনে এবং অনন্য হেয়ার স্টাইলে মাতিয়েছিলেন উৎসব।

2006তিন. ২০০৬- এ নেভী ব্লু রংয়ের একটি স্ট্রেপ লেস গাউন পরে কানের লাল গালিচায় পা রাখেন ঐশ্বরিয়া। গলায় পরেন হিরে বসানো একটি জড়োয়া নেকলেস। সব মিলিয়ে লাল গালিচায় নীল পরীর বেশে আসেন তিনি। এ উপস্থাপনায় ব্যাপক প্রশংসা কুড়ান তিনি।

209চার. ২০০৯- এ বছর কান উৎসবে ঐশ্বরিয়া হাজির হন সবচয়ে মোহনীয় সাজে। মেঝে পর্যন্ত ছড়ানো সাদা রংয়ের গাউন পরেন তিনি। সেই বার কান দর্শকমহলকে সমানে মাতিয়েছিলেন এ বিশ্বসুন্দরী।

20011পাঁচ. ২০১১- এলা সাবে’র ডিজাইন করা অ্যাম্বডারি একটি গাউন পরে এই বছরে কান উৎসবে আসেন ঐশ্বরিয়া।

কান মাতাতে পারেননি যে পোশাকে:

2010এ পর্যন্ত কান চলচ্চিত্র উৎসবে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন এর সবচেয়ে খারাপ উপস্থাপনা ছিল ২০০৪-এ। সে সময় সবুজ শাড়িতে লাল গালিচায় হেঁটেছিলেন তিনি। তার হেয়ার স্টাইলও ছিল বিরক্তিকর।

2003

২০১০- প্রিয় ডিজাইনারের ডিজাইন করা পোশাক পরে এই বছর কান উৎসবে আসেন ঐশ্বরিয়া। বেগুনি রংয়ের ‘মৎসকন্যা গাউন’ পরে কান উৎসবে হাজির হন এ বিশ্বসুন্দরী। কিন্তু তার পোশাক মনোযোগ কাড়তে পারেনি সে বারও।

অ্যাশ ২০০৩-এ গোড়ালি পর্যন্ত লম্বা একটি কালো গাউনের সাথে সোজা চুলের হেয়ার স্টাইল করছিলেন কিন্তু সেই বার লাল গালিচা মাতাতে ব্যর্থ হন তিনি।

উল্লেখ্য, এ বছরেও কান উৎসবে যোগ দিয়েছেন এই সাবেক বিশ্বসুন্দরি।

ইউএম/