রাবির চার ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

rabi
rabi
ছাত্রলীগ ও রাবি লোগো

সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের চার নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে জরুরি ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে রাবি শাখা ছাত্রলীগ প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জনান হয়েছে।

এই চার নেতা হলেন- রাবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রানা চৌধুরী, মো. মেহেদী হাসান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান পলাশ, পরিবেশ সম্পাদক মো. মুসতাকিম বিল্লাহ।

ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই চারজনকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়াও প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও অনুরোধ করা হয়।

এ ব্যাপারে রাবি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি মিজানুর রহমান রানা বলেন, ছাত্রলীগ একটি নিয়মতান্ত্রিক সংগঠন, কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দিবে না সংগঠন। এক জন্য তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ছাত্রলীগ নেতা মেহেদী হাসান অসুস্থ দাবি করে পরীক্ষা বন্ধের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সাংস্কৃতি বিভাগে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মাস্টার্সের ৫নম্বর কোর্সের চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়ার জন্য একাডেমিক বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে করে পূর্ব ঘোষিত নির্দিষ্ট সময় থেকে ২০-২৫ জন শিক্ষার্থী নিয়ে পরীক্ষা নেওয়া শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসানও ওই বিভাগের মাস্টার্সের পরীক্ষার্থী ছিলেন। কিন্তু তার প্রস্তুতি না থাকায় তিনি অসুস্থতার কথা বলে পরীক্ষা বন্ধ করতে বিভাগকে অনুরোধ করেন।

কিন্তু একাডেমিক বৈঠকের সিদ্ধান্ত হওয়ায় একজনের জন্য পরীক্ষা না পিছানোর কথা বিভাগ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়। এতে মঙ্গলবার সকাল ১০ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রানা চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পদক ও পরিবেশ বিষয়ক সম্প্রাদক মুসতাকিম বিল্লাহ এই তিন জনের নেতৃত্বে ২০-২৫জন নেতাকর্মী ভবনের ২০৪ নম্বর কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা শিক্ষকাদের লাঞ্চিত করে।

এ সময় তারা পরীক্ষা দিতে আসা অন্য শিক্ষার্থীদেরকেও পরীক্ষা না দেওয়ার জন্য হুমকি দেয়। তবে এখন পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে না এবং অনির্দিষ্ট কালের জন্য পরীক্ষা স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে বলে বিভাগ থেকে জানানো হয়।

এমআই/সাকি