দিনভর ভোগান্তিতে ‘বিকাশের’ গ্রাহকরা

bikash
bikash
বুধবার সারাদিন বিকাশের নেটোয়ার্ক বন্ধ ছিল

নেটওয়ার্ক বন্ধ থাকায় বুধবার সারাদিন বন্ধ ছিল মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশের লেনদেন। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের কোথাও বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যায়নি। আবার অতি জরুরী প্রয়োজনেও টাকা তুলতে পারেননি এর গ্রাহকরা। এতে দিনভর ভোগান্তির মধ্যে ছিলেন তারা।

জানা গেছে, বিকাশের এজেন্টের মাধ্যমে লেনদেনের পাশাপাশি এটিএম বুথেও আজ লেনদেন করতে পারেননি এর গ্রাহকরা।

কারিগরি ত্রুটির কারণে গ্রাহকদেরকে সাময়িক ভোগান্তি পোহাতে হয় বলেবিকাশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। রাত ৮টার দিকে লেনদেনে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে বলে বিকাশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

তবে বিকাশের বিরুদ্ধে মাঝেমাঝে নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখার এমন অভিযোগ নতুন কিছু নয়। প্রতি সপ্তাহেই দু-এক দিন এমন ভোগান্তিতে পড়তে হয় বলে অভিযোগ করছেনে চট্টগ্রামের কাজির দেউড়ি রোডের রোজ এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী এবং বিকাশের এজেন্ট মঞ্জুরুল করিম।

একই ধরণের অভিযোগ করেছেন ঢাকার পুরানা পল্টন মোড়ের বিকাশের এজেন্ট ফারুক হোসেন।

তারা অর্থসূচককে জানান, আজ সারাদিন তারা বিকাশের মাধ্যমে কোন লেনদেন করতে পারেননি। কোনো ধরনের নোটিশ ছাড়াই তিন চার দিন পর পর কয়েক ঘন্টা বিকাশের টাকা পাঠানোর সেবা বন্ধ থাকে বলেও অভিযোগ করেন তারা। আজ সকাল থেকে ১৫ ঘন্টার বেশি সময় ধরে কোন টাকা স্থানান্তর ও হিসাব দেখা যাচ্ছে না। কখন স্বাভাবিক হয়ে আসবে তাও জানাতে পারেন নি তারা।

সারাদিনই টাকা স্থানান্তর বা তুলতে না পারায় গ্রাহকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বলে জানান তারা। দিন দিন বিকাশের এ ভোগান্তি বাড়ছে বলেও অভিযোগ করেন এ এজেন্টরা।

হুমায়ুন কবির বিপ্লব নামের বিকাশের একজন গ্রাহক অর্থসূচককে জানান, তিনি কিছুদিন আগে তার বিকাশ একাউন্টে কিছু টাকা জমা করেছিলেন। প্রয়োজনে এ টাকা ব্যবহার করবেন এটাই ছিল তার মূল উদ্দেশ্য। আজ টাকার সংকট হওয়ায় তিনি প্রথমে বিকাশ এজেন্টের কাছে যান টাকা তুলতে।কিন্তু সেখান থেকে তাকে খালি হাতেই ফেরত আসতে হয়। এরপর তিনি ব্র্যাক ব্যাংকের কয়েকটি এটিএম বুথে গিয়েসেখান থেকেওকোনো টাকা তুলতে পারেননি তিনি।

সারাদিন বিকাশ গ্রাহক সেবা কেন্দ্রের নম্বরে (১৬২৪৭) ফোন করেও কোন সংযোগ পাওয়া যায়নি। প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে সংযোগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে ওই নম্বর থেকে জানানো হয়েছে। তবে রাত ৮ টার দিকে ওই নম্বরে ফোন করলে গ্রাহক সেবা কেন্দ্রের র্কমর্কতা এম. অসীম জানান, সার্ভারের অনাকাঙ্খিত ত্রুটির কারণে সকাল থেকে সারা দেশে এ ধরনের সমস্যা হয়েছে। আমাদের সার্ভারে কাজ চলছে আশা করছি দ্রুত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

এমন সমস্যায় কেন গ্রাহক ও এজেন্টদের জানানো হয় না জানতে চাইলে তিনি বলনে, বিষয়টি আমরা উর্ধ্বতন র্কমর্কতাদের জানাবো। পরবর্তীতে এ ধরনের সমস্যা হলে গ্রাহকদের এসএমএস অথবা ফোন করে জানানোর চেষ্টা করা হবে বলে জানান তিনি।

বিকাশের জনসংযোগ কর্মকর্তা জাহেদুল ইসলাম অর্থসূচককে বলেন, বিকাশের নেটওয়ার্কে সকাল থেকেই কিছু ত্রুটি ধরা পড়ে। সমস্যা ধরা পড়ার পর থেকেই তা সমাধানে কাজ শুরু করে আমাদের প্রযুক্তিবিদরা। রাত ৮টার দিকে কারিগরি এ ত্রুটি দুর করা গেছে। এখন গ্রাহকরা আর টাকা লেনদেন বা জমা করার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়বেন না বলে জানান তিনি। গ্রাহকদের সাময়িক এ অসুবিধার জন্য তিনি দুঃখও প্রকাশ করেন।

এএস/এসএই