পাঁচ মাসে ৭০৮ কোটি টাকার রাইট অনুমোদন

  • mukto rani
  • May 13, 2014
  • Comments Off on পাঁচ মাসে ৭০৮ কোটি টাকার রাইট অনুমোদন
Aramit-Brac Bank-RLI-GN-Delta Spiners
Aramit-Brac Bank-RLI-GN-Delta Spiners
পাঁচ কোম্পানি লোগো

চলতি বছরের পাঁচ মাসে পাঁচ কোম্পানিকে রাইট শেয়ার ছাড়ার অনুমতি দিয়েছে বিএসইসি। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এই কোম্পানিগুলোকে মূলধন বাড়ানোর জন্য রাইট শেয়ার ইস্যু করার এই অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলো বাজার থেকে ৭০৮ কোটি ৯৪ লাখ ৩ হাজার টাকা তোলার অনুমতি পেয়েছে। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

রাইট ইস্যুর অনুমোদন পাওয়া কোম্পানির তালিকায় রয়েছে, বস্ত্র খাতের ডেল্টা স্পিনার্স ও জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, রুপালি লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং আরামিট সিমেন্ট লিমিটেড।

তবে, এই তালিকায় থাকা ২ টি ছাড়া বাকী ৩টি কোম্পানিই প্রিমিয়াম সহ রাইটের আবদেন করেছে। এর মধ্যে ডেল্টা স্পিনার্সের রাইট আবেদন এখনো শুরু হয়নি। আগামি আগস্ট মাস থেকে এই কোম্পানির আবেদন শুরু হবে।

উল্লেখ্য, কোম্পানিগুলোকে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা ধারা ২সিসি অনুযায়ী রাইট শেয়ার ইস্যু করার অনুমোদন দিয়েছে। এই সময়ের মধ্যে কয়েকটি কোম্পানির এই ধারা মেনে উদ্যোক্তা পরিচালকের পদ না থাকায় রাইট আবেদন নাকচ করেছে বিএসইসি।

জানা যায়, ডেল্টা স্পিনার্স ১০ টাকা অভিহিত মুল্যে (১:২) হারে হারে শেয়ার ছাড়ার অনুমোদন পেয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ৯ কোটি ১৭ লাখ ২৫ হাজার ৬০০ শেয়ার ইস্যু করে ৯১ কোটি ৭২ লাখ ২৫ হাজার টাকা তুলবে।

জেনারেশন নেক্সট ১০ টাকা অভিহিত মুল্যে (৩:২) হারে শেয়ার ছাড়ার অনুমোদন পেয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ১১ কোটি ২৪ লাখ ৭৮ হাজার ৪০০ টি শেয়ার ইস্যু করে ১১২কোটি ৪৭ লাখ ৮৪ হাজার টাকা তোলে।

এদিকে ব্রাক ব্যাংক অভিহিত মূল্যের সাথে ১০ টাকা প্রিমিয়াম সহ (২:১) হারে শেয়ার ছাড়ার অনুমতি পেয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ২২ কোটি ১৬ লাখ ৫২ হাজার ২২৮ টি শেয়ার ইস্যু করে ৪৪৩ কোটি ৩০ লাখ ৪৫ হাজার টাকা তোলে।

রুপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স ২০ টাকা প্রিমিয়াম সহ ৩০ টাকা মূল্যে (১:১) হারে শেয়ার ছাড়ার অনুমতি পেয়েছে।এর মাধ্যমে কোম্পানিটি   ২০ লাখ ৮ হাজার ৩০৪ টি শেয়ার ইস্যু করে ৩৬ কোটি ২ লাখ ৪৯ হাজার ১২০ টাকা তোলে।

আর আরামিট সিমেন্ট ৫ টাকা প্রিমিয়াম সহ ১৫ টাকা দরে ১৫ টাকা দরে (১:১) হারে রাইট ইস্যু করার অনুমতি পেয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ১ কোটি ৬৯ লাখ ৪০ হাজার শেয়ার ইস্যু করে ২৫ কোটি ৪১ লাখ টাকা তোলার অনুমোদন পেয়েছে।

এ প্রসঙ্গে পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞ মো. আবু মুসা অর্থসূচককে বলেন, পুঁজিবাজারে কোম্পানিগুলোর ব্যবসায়িক ভিত্তি মজবুত করার জন্য রাইট শেয়ার ইস্যু করার প্রয়োজন রয়েছে। তবে অবশ্যই কোম্পানিগুলোর ব্যবসায়িক কর্মকান্ড দেখে অনুমোদন দিতে হবে। কারণ কোম্পানির রাইট ইস্যু বাজার দরের উপর প্রভাব ফেলে।

অভিজ্ঞ বিনিয়োগকারীদের মতে, পুঁজিবাজারের পরিধি বড় করতে অবশ্যই রাইট শেয়ার ও প্রিমিয়ামের প্রয়োজন রয়েছে। তবে যোগ্য কোম্পানিগুলোকে যাচাই-বাছাই করে অনুমোদন দিতে হবে।

অর্থসূচক/এসএ/এমআরবি/