জুলাইয়ের আগে কোচ পাচ্ছে না বিসিবি

  • Emad Buppy
  • May 13, 2014
  • Comments Off on জুলাইয়ের আগে কোচ পাচ্ছে না বিসিবি
BCB
BCB
ফাইল ফটো

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান কোচের দায়িত্ব থেকে কিছুদিন আগেই পদত্যাগ করলেন শেন জার্গেনসেন। কিন্তু এখনও কোনো নতুন কোচ নিয়োগের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি বিসিবি। তবে জুলাই মাসেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে। এই সময়টুকু কোচবিহীন থাকতে হবে জাতীয় দলকে।

তবে ভারত সিরিজের জন্য দলের দায়িত্ব নিতে পারেন কোনো স্থানীয় কোচ। অন্তর্বর্তীকালীন কোচের নামের তালিকায় রয়েছে সাবেক খেলোয়াড় ও জাতীয় দলের সাবেক কোচ সারোয়ার ইমরান এবং জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। সম্ভাব্য কোচের জন্য আরও কিছু নাম শোনা যাচ্ছে। তবে এখনও চূড়ান্ত হয়নি কিছুই।

বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, কোচ নিয়োগ কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে। তবে ১ জুলাইয়ের আগে চূড়ান্ত হচ্ছে না প্রধান কোচ নিয়োগের প্রক্রিয়া।

তিনি বলেন, কোচ নিয়োগের ৭৫ শতাংশ কাজ শেষ। অতি শিগগিরই কোচের নাম ঘোষণা করা হবে। সপ্তাহখানেকের মধ্যে হেড কোচ চূড়ান্ত করলেও আগামি ১ জুলাইয়ের আগে কাজ শুরু করতে পারবেন না তিনি। আশা করছি মে মাসের মধ্যেই আমরা নিশ্চিত করতে পারব কে হচ্ছেন বাংলাদেশের হেড কোচ?

তিনি আরও বলেন, জুনে ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জাতীয় দলের দায়িত্বে স্থানীয় কোনো কোচকে দেখা যাবে। তালিকায় এগিয়ে আছেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার সারওয়ার ইমরান ও খালেদ মাহমুদ সুজন।

জালাল ইউনুস জানান, সারওয়ার ইমরান এর আগেও কিছুদিন জাতীয় দলের কোচ ছিলেন। তার অধীনেই অভিষেক টেস্ট খেলেছিল বাংলাদেশ। খালেদ মাহমুদের অভিজ্ঞতাও কম নয়। সম্প্রতি ঘরোয়া ক্রিকেটে অন্যতম সফল কোচ তিনি। জেমি সিডন্সের সময়ে জাতীয় দলের সহকারি কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

শেন জার্গেনসেনের উত্তরসূরি খঁজতে গিয়ে বিসিবি একই সঙ্গে আলোচনা করছে শ্রীলঙ্কার হাথুরুসিংহে আর অস্ট্রেলিয়ার বেভানের সঙ্গে। গতকাল রোববার পর্যন্ত প্রধান কোচ হিসেবে তাদের দু’জনের নাম শোনা গেছে। তবে এখনও কিছুই চূড়ান্ত হয়নি।

ইতোমধ্যে দুজনকেই প্রস্তাবপত্র পাঠানো হয়। শর্তে বনিবনা হলে ২০১৫ বিশ্বকাপ সামনে রেখে দু’জনকে জাতীয় দলের দুইটি ভিন্ন দায়িত্ব দেওয়ার কথা চিন্তা করছে বিসিবি। কিন্তু সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, হাথুরুসিংহের চিন্তাভাবনা একটু অন্য রকমই।

ক্রিকইনফোর এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, শ্রীলঙ্কার কোচ হওয়ার ডাক পেলে সাড়া দেওয়ার কথা বিবেচনা করে দেখবেন। আর সবার মতো তিনিও দেশের ক্রিকেটের জন্য কাজ করতে আগ্রহী।

হাথুরুসিংহ এর আগে নিউ সাউথ ওয়েলসের সহকারী কোচ এবং সিডনি থান্ডারের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন।

বেভান এখন পর্যন্ত কোনো কিছু জানায়নি। তবে হাথুরুসিংহের সঙ্গে প্রস্তাবপত্র নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছিল অনেক আগেই। আলোচনা শুরুর আগেই হাথুরুসিংহের বিষয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ও বাইরের বিভিন্ন মিডিয়া।

হাথুরুসিংহকে পাওয়া না গেলে হয়তো বেভানকে চূড়ান্ত সমাধান হিসেবে দেখছে বিসিবি। প্রধান কোচ খোঁজার সংক্ষিপ্ত তালিকায় আরও একজন আছে। তবে তার নাম জানা যায়নি।

জানা গেছে, চড়া বেতন আর অনেক কঠিন শর্ত দিলেও অস্ট্রেলিয়ার সাবেক এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে যোগাযোগবিচ্ছিন্ন করেনি বিসিবি। লিখিত প্রস্তাবপত্র দেওয়ার পর এখন অপেক্ষা করছে বিসিবি।

বিসিবি সূত্র জানায়, প্রাথমিকভাবে প্রধান কোচ হওয়ার জন্য মাসে ৩০ হাজার ডলারের বেশি বেতনের বাইরেও কিছু শর্ত দিয়েছেন বেভান। তিনি চুক্তিবদ্ধ হতে চান ২০১৫ বিশ্বকাপ পর্যন্ত। দলের সঙ্গে থাকতে চান শুধু সিরিজ বা টুর্নামেন্টের সময়।

তবে শেষ পর্যন্ত প্রধান কোচ না হলেও বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে বেভানকে খণ্ডকালীন ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে নেওয়ার বিষয়ও বিবেচনায় রেখেছে বিসিবি। সেক্ষেত্রে মাসিক বেতনের পরিবর্তে তার সাথে খণ্ডকালীন প্যাকেজ চুক্তি হতে পারে।

বোলিং কোচ হিসেবে জিম্বাবুয়ের সাবেক অধিনায়ক হিথ স্ট্রিকের সম্ভাবনা বেশি। ফিল্ডিং কোচ হিসেবে নেওয়া হবে স্থানীয় কাউকে। তবে বিশ্বকাপের আগে স্বল্প সময়ের জন্য আনা হতে পারে বিশেষজ্ঞ ফিল্ডিং কোচ।

আগামি মাসের ভারত সিরিজে জাতীয় দলের সাবেক কোচ সারওয়ার ইমরানকে কোচিংয়ের দায়িত্ব দেওয়ার কথা বিসিবির পক্ষ থেকে বলা হলেও তাকে এখনও আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দেওয়া হয়নি।

এসএসআর/এ এস