পাট ও পাটজাত পণ্যে রপ্তানি আয় কমেছে

  • Emad Buppy
  • May 10, 2014
  • Comments Off on পাট ও পাটজাত পণ্যে রপ্তানি আয় কমেছে
jute
jute
২০১৩-১৪ অর্থ বছরে পাট ও পাটজাত পণ্যে রপ্তানি আয় কমেছে

চলতি ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের জুলাই থেকে এপ্রিল পর্যন্ত পাট ও পাটজাত পণ্যে রপ্তানি আয় গত বছরের তুলনায় ২১ শতাংশ কমেছে। একই সময়ে লক্ষ্যমাত্রার ২৭ দশমিক ৫৪ শতাংশ কম আয় হয়েছে এই খাতের রপ্তানিতে।

বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হিসাব মতে, ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের প্রথম ১০ মাসে পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৯৩ কোটি ৬৭ লাখ মার্কিন ডলার। এর বিপরীতে এই খাতে পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৬৭ কোটি ৪৭ লাখ মার্কিন ডলার।

২০১২-১৩ অর্থ বছরের একই সময়ে এই খাতে রপ্তানি আয়ের পরিমাণ ছিল ৮৬ কোটি মার্কিন ডলার।

পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানির সবগুলো খাতে নিম্নমূখী প্রবণতা লক্ষ করা যাচ্ছে। ২০১২-১৩ অর্থ বছরের জুলাই থেকে এপ্রিল পর্যন্ত পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানি করে যে অর্থ আয় করা হয়েছিল চলতি অর্থ বছরের একই সময়ে ক্ষেত্র বিশেষে এর অর্ধেকও আয় করা সম্ভব হয়নি।

২০১৩-১৪ অর্থ বছরের প্রথম ১০ মাসে পাটের থলে ও ব্যাগ রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৯ কোটি ২৩ লাখ মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার মাত্র ৩৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এটি গত অর্থ বছরের একই সময়ের আয়ের তুলনায় ৫২ দশমিক ২৯ শতাংশ কম।

চলতি অর্থ বছরের প্রথম ১০ মাসে কাঁচা পাট রপ্তানিতেও আয়ের পরিমাণ হ্রাস পেয়েছে। গত অর্থ বছরের একই সময়ে এই পণ্যতে রপ্তানি আয়ের পরিমাণ ছিল ২০ কোটি মার্কিন ডলার। চলতি অর্থ বছরে এই খাতে আয় হয়েছে ১০ কোটি মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪৯ শতাংশ কম।

অল্পের জন্য লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে পাটের সুতা ও কুণ্ডলী রপ্তানির ক্ষেত্রে। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের প্রথম ১০ মাসে এই খাতের আয় সাড়ে ৪৪ কোটি মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় মাত্র ১ শতাংশ কম। লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কম হলেও গত অর্থ বছরের একই সময়ের তুলনায় এই খাতে ৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ বেশি আয় করা সম্ভব হয়েছে।