বুক বিল্ডিংয়ে ডিএসই সিএসই’র সাথে ইউনাইটেড পাওয়ারের চুক্তি

  • mukto rani
  • May 8, 2014
  • Comments Off on বুক বিল্ডিংয়ে ডিএসই সিএসই’র সাথে ইউনাইটেড পাওয়ারের চুক্তি
United Power
United Power
ডিএসই এবং সিএসইর সাথে ইউনাইটেড পাওয়ারের চুক্তি স্বাক্ষর বুক বিল্ডিংয়ে

প্রায় সাড়ে তিন বছর পর বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে চুক্তি স্বাক্ষর করল নতুন কোম্পানি ইউনাইটেড পাওয়ার অ্যান্ড জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড। বৃহস্পতিবার সকালে ডিএসই কার্যালয়ে ‌এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান হয়। এসময় ডিএসই পক্ষ থেকে শফিকুল ইসলাম ভুইয়া, সিএসই থেকে হাসনাইন বারী ইউনাইটেড পাওয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহা. মইনউদ্দীন নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ডিএসইর চেয়্যারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মিয়া ,লিস্টিং বিভাগের উপমহাব্যবস্থাপক নিজাম উদ্দীন, অপারেশন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক সামিউল ইসলাম, কোম্পানির চেয়্যারমান হাসান মাহমুদ রাজা সহ অন্যান্য পরিচালকরা।

এছাড়া কোম্পানির ইস্যু ম্যানেজার লঙ্কাবাংলা ইনভেস্টমেন্ট এবং আইসিবির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় লঙ্কাবাংলা ইনভেস্টমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসান জাভেদ চৌধূরী অর্থসূচককে বলেন, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে স্টক ব্রোকার এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডের কাছ থেকে ভালো প্রত্যাশা রয়েছে। কেননা গত এক বছরে ডিএসই ম্যানেজমেন্ট অনেক ভালো কাজ করেছে। আর বাজারের খারাপ সময়েও আমরা বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে নতুন কোম্পানি নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি আরো বলেন, ইউনাটেড পাওয়ার কোম্পানিটিও উৎপাদনের দিক থেকে একটা ভালো কোম্পানি। আশা করি কোম্পানটি পঁজিবাজারে ভালো করবে।

উল্লেখ্য, বুক বিল্ডিং পদ্ধতি অনুসারে প্রথমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করা হবে। এ শেয়ার কেনার জন্য আগামি ১৮ থেকে ২০ মে পর্যন্ত দর প্রস্তাব জমা নেওয়া হবে।

আগামি ১৮ মে বেলা ২ টা থেকে আগ্রহী ‌যোগ্য প্রতিষ্ঠানগুলো শেয়ারের জন্য দর প্রস্তাব দিতে পারবে। দর প্রস্তাব করার শেষ সময় ২০ মে বেলা ২ টা পর্যন্ত। দর প্রস্তাবের সঙ্গে প্রস্তাবিত শেয়ারের ক্রয়মূল্যের ২০ শতাংশ অর্থ জমা দিতে হবে।

প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে বিক্রি শেষ হওয়ার পর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রির জন্য প্রসপেক্টাস প্রকাশ করবে কোম্পানি। তাতে আইপিও’র আবেদন ও টাকা জমা নেওয়ার সময়সূচির উল্লেখ থাকবে। আগামি মাসে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদন জমা নেওয়ার সম্ভাবনা আছে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী এ কোম্পানিটি ৩ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করবে। সর্বোচ্চ দামে এ শেয়ার বিক্রি হলে কোম্পানিটি বাজার থেকে সংগ্রহ করতে পারবে ২৩৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা। আর সর্বনিম্ন দামে এ শেয়ার বিক্রি হলে কোম্পানিটি সংগ্রহ করতে পারবে ১৫৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। আইপিও’র মাধ্যমে সংগৃহীত টাকায় কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদি ঋণ পরিশোধ, চলতি মূলধনের সংস্থান এবং আইপিওর খরচ নির্বাহ করবে।

গত বছরের শেষ ভাগে ইউনাইটেড পাওয়ার অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়। ছয় ক্যাটাগরির ১৮ টি প্রতিষ্ঠান এ প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে দর প্রস্তাব করে। এসব দরের ভারীত্ব গড় হয় ৬০ টাকা।

এর আগে ৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) কোম্পানিটিকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে শেয়ারের দর গ্রহণের অনুমতি দেয়। তবে বাজারের মন্দার কারণে পুরো প্রক্রিয়াটি ধীর হয়ে পড়ে। গত মাসের শেষ ভাগে বুক বিল্ডিংয়ের সংশোধিত আইনের আওতায় বিডিংয়ের জন্য আগ্রহী প্রতিষ্ঠানগুলোর অংশগ্রহণে মহড়া হয়।

অর্থসূচক/এসএ/এমআরবি/