ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেছে নজরুল সমর্থকেরা

ছবি: ফাইল ছবি

ছবি: ফাইল ছবিনারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেছে তার সমর্থকেরা।

বুধবার বিকেলে অপহৃত নজরুলের লাশ উদ্ধারের পরেই রাস্তায় নেমে এসে সড়ক অবরোধ করে তারা।

জানা গেছে, সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছে বিক্ষুব্ধ কর্মী-সমর্থকরা। এতে বন্ধ হয়ে গেছে যান চলাচল। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এর আগে, বুধবার দুপুরে শীতলক্ষ্যা নদীতে ৬টি লাশ ভেসে ওঠে। এরপর বিকেলে প্যানেল মেয়র নজরুলের ভাই আব্দুস সালাম ও স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বিউটি নজরুলের লাশ শনাক্ত করেন। তারপর একে একে নিহত অন্যদের লাশও শনাক্ত করে তাদের স্বজনেরা। এরা হলেন-নজরুলের সহযোগী স্বপন, লিটন, তাজুল, আইনজীবী চন্দন ও গাড়িচালক ইব্রাহীম।

নারায়ণগঞ্জ বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার মোরশেদ জানান, স্থানীয় লোকজন গলাগাছিয়া ইউনিয়ন এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে প্রথমে তিনটি লাশ ভেসে ওঠার খবর পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি লাশগুলো উদ্ধার করে।

তিনি আরও জানান, গত ২৮ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের লিংকরোডে দুইটি গাড়িতে থাকা সাতজন ব্যক্তি অপহরণের ঘটনা ঘটে। এদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজন অপহৃত হন। এদের মধ্যে কারো মরদেহ এখানে আছে কি না বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য ফতুল্লা মডেল থানার ওসিকে খবর দেওয়া হয়েছে।

গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের(নাসিক) সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ পাঁচজনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

এআর