নোভারটিজের সঙ্গে ব্যবসা বিনিময় বিষয়ে জানে না গ্ল্যাক্সো বাংলাদেশ

  • বার্তা কক্ষ
  • April 28, 2014
  • Comments Off on নোভারটিজের সঙ্গে ব্যবসা বিনিময় বিষয়ে জানে না গ্ল্যাক্সো বাংলাদেশ
glaxo and novertis

glaxo and novertisবিশ্বের অন্যতম শীর্ষ দুই ওষুধ প্রস্তুতকারক গ্ল্যাক্সো পিএলসি ও নোভারটিজের ব্যবসা বিনিময় বিষয়ক সিদ্ধান্ত সম্পর্কে কিছু জানে না গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন বাংলাদেশ লিমিটেড। আর এ ব্যবসা বিনিময়ের ফলে গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন বাংলাদেশ এর ব্যবসা ও মুনাফায় কোনো প্রভাব পড়বে কি-না সেটিও স্পষ্ট নয়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পাঠানো চিঠির জবাবে এ তথ্য জানিয়েছে কোম্পানিটি।

গত ২২ এপ্রিল আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণ মাধ্যমে গ্ল্যাক্সো ও নোভারটিজের ব্যবসা বিনিময় বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরদিন কোম্পানিটির শেয়ারের দাম অনেক বেড়ে যায়। লেনদেনের এক পর্যায়ে বিক্রেতা উধাও হয়ে পড়ে কোম্পানিটির। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডিএসই ব্যবসা বিনিময় বিষয়ে কোম্পানিটির কাছে বিস্তারিত জানতে চায়। উত্তরে কোম্পানিটি জানায় এ বিষয়ে তারা অফিসিয়ালি কিছু জানে না।

গ্ল্যাক্সো বাংলাদেশ জানিয়েছে, ব্যবসা বিনিময়ের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয়। গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন পিএলসি ও নোভারটিজের হোল্ডিং কোম্পানি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বিষয়ে গ্ল্যাক্সো বাংলাদেশ এর কাছে কোনো তথ্য নেই। ব্যবসা বিনিময় প্রক্রিয়া শেষ হতে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সময় লাগবে। তাই তার আগে এর সম্ভাব্য প্রভাব, বিশেষ করে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে ব্যবসা বিনিময়ের ফলে বাংলাদেশে গ্ল্যাক্সোর ব্যবসায় কোনো প্রভাব পড়বে কি-না সে সম্পর্কে কিছু বলা যাবে না।

উল্লেখ, গত ২২ এপ্রিল সুইজারল্যান্ডভিত্তিক নোভারটিজ ও যুক্তরাজ্যভিত্তিক গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন নিজেদের মধ্যে দুটি ইউনিট বিনিময়ের লক্ষ্যে চুক্তি করে। চুক্তি অনুসারে, নোভারটিজ ১ হাজার ৬০০ কোটি ডলারে অধিগ্রহণ করবে গ্ল্যাক্সোরক্যান্সার নিরাময়কারী ওষুধের ব্যবসা। অন্যদিকে নোভারটিজের কাছ থেকে ৭১০ কোটি ডলারে তাদের ফ্লুজাতীয় রোগের ভ্যাকসিন ব্যবসা কিনে নেবে গ্ল্যাক্সো।

ওই চুক্তির প্রভাব পড়বে কোম্পানি দুটির শেয়ার কাঠামোতেও। চুক্তির ফলে গ্ল্যাক্সোর শেয়ারহোল্ডাররা ৪শ কোটি পাউন্ড ফেরত পাবেন। বাংলাদেশী মুদ্রায় যার পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ৫২ হাজার কোটি টাকা।

বিশ্বের দুই শীর্ষ ওষুধ প্রস্তুতকারকের চুক্তিতে কেন্দ্রীয়ভাবে তারা লাভবান হলেও বাংলাদেশে তার তেমন প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা নেই। তারপরও ২২ এপ্রিলের পর থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম। মাত্র চারদিনে এ শেয়ারের দাম ১৫০০ টাকা থেকে ১৮০০ টাকায় উঠে যায়।

গ্ল্যাক্সো নিয়ে অর্থসূচকের আরও দুটি রিপোর্ট:

গ্ল্যাক্সো’র শেয়ারহোল্ডাররা ৫২ হাজার কোটি টাকা ফেরত পাচ্ছেন

গ্ল্যাক্সোর শেয়ারের হাওয়াই উল্লম্ফন