উৎসে কর কমলো তৈরি পোশাক রপ্তানিতে

গার্মেন্টস শ্রমিক

Garments-Warkerতৈরি পোশাক শিল্পে পণ্য রপ্তানিতে উৎসে কর শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে কমিয়ে শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ করেছে সরকার। একই সাথে অন্যান্য পণ্যে এ করের হার শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে কমিয়ে শূন্য দশমিক ৬ শতাংশ করা হয়েছে।

বুধবার বিকালে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করে। এর ফলে পোশাক রপ্তানিকারকরা এখন শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ উৎসে কর মওকুফ পাচ্ছেন। যা চলতি মাসের ২২ তারিখ থেকে প্রযোজ্য হয়েছে ধরা হয়েছে। আর বহাল থাকবে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত ।

এনবিআর সূত্র জানায়, পোশাক শিল্পের সাথে জড়িত  নিট ওয়্যার, ওভেন গামেন্টস, টেরি টাওয়ের কার্টুন ও গার্মেন্ট সামগ্রী রপ্তানিতে নিয়োজিত করদাতার রপ্তানি আয়ের আয়ের ক্ষেত্রে পূর্বের শূন্য দশমিক ৮ শতাংশের পরিবর্তে শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ করা হয়েছে। আর  অন্যন্য পণ্যের রপ্তানিতে নিয়োজিত করদাতাকে রপ্তানিতে শূন্য দশমিক ৮ শতাংশের পরিবর্তে শূন্য দশমিক ৬ শতাংশ উৎসে কর পরিশোধ করতে হবে।

গত বছরের রাজনৈতিক সহিংসতা এবং বেতন বৃদ্ধিসহ অন্যান্য কারণে ক্ষতির মুখে থাকা পোশাক খাতে প্রণোদনার অংশ হিসেবে অর্থমন্ত্রণালয়ের নির্দেশে এ ছাড় দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে এনবিআর সূত্র। যদিও এ উৎসে কর কমানোর ফলে মোট ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকার রাজস্ব আয় থেকে সরকার বঞ্চিত হবে বলে জানিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর।

প্রসঙ্গত, উৎসে কর দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে কমিয়ে সেটা দশমিক ২৫ শতাংশ করা; নতুন বেতন নীতিমালা অনুযায়ী গার্মেন্টস শ্রমিকদের চার মাসের বেতন ব্যাংক থেকে প্রদান ও এ অর্থ একটি সুদবিহীন ব্লক অ্যাকাউন্টে রেখে ২ বছর মেয়াদে প্রদানের সুযোগ; সব ধরনের মেয়াদি ঋণ ২ বছরের জন্য সুদবিহীন ব্লক অ্যাকাউন্টে রাখা; লোন চলমান পরিস্থিতিতে পোশাক শিল্প খাতের কোনো ব্যাংক ঋণ শ্রেণী বিন্যাসিত না করা; রফতানি আয়ের উপর প্রতি ডলারের বিনিময়ে ৩ টাকা হারে বিশেষ বোনাস প্রদান, টিটি’র বিপরীতে বিশেষ প্রণোদনা প্রদানসহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ  দাবি জানিয়ে আসছে পোশাক শিল্প খাত সংশ্লিষ্টরা।

 এইউ নয়ন