রাজশাহীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কংগ্রেস ২৪-২৭ এপ্রিল

ওয়ার্কাস পার্টি

ওয়ার্কাস পার্টিরাজশাহীতে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির নবম কংগ্রেস শুরু হচ্ছে আগামি ২৪ এপ্রিল। চলবে ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত। এ কংগ্রেসে সারাদেশ থেকে ওয়ার্কার্স পার্টির ৬ শতাধিক প্রতিনিধি-পর্যবেক্ষক অংশ নেবেন।

এ ছাড়া কংগ্রেসে ১৪ দলসহ বিভিন্ন জাতীয় রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতা এবং বিভিন্ন দেশের ভ্রাতপ্র্তিম কমিউনিস্ট ও ওয়ার্কার্স পার্টির ১৩ জন নেতা যোগ দেবেন।

রাজশাহীতে মঙ্গলবার দুপুরে ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে কংগ্রেসের সার্বিক প্রস্তুতি তুলে ধরা হয়। সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তুতি কথা তুলেন ধরেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরো সদস্য ও রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনি বলেন, ২৪ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে খাপড়া ওয়ার্ডের শহীদদের প্রতি প্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে কংগ্রেসের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে।

তিনি আরও বলেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ১৪ দলের মুখপাত্র স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমসহ ১৪ দল এবং সিপিবি, বাসদ, ঐক্যন্যাপ, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিসহ গণতান্ত্রিক-অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া কংগ্রেসে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত, নেপাল, শ্রীলংকা, পাকিস্তান, ভিয়েতনাম, উত্তর কোরিয়া, চীন, কিউবা, তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশের কমিউনিস্ট ও ওয়ার্কার্স পার্টির নেতারা অংশ নেবেন। এ ছাড়া রাজধানী ঢাকায় নিযুক্ত কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূতগণ কংগ্রেসে উপস্থিত থাকবেন। ইতোমধ্যে বিভিন্ন দেশের ৪৭টি রাজনৈতিক দল অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন বলে জানান ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনি বলেন, কংগ্রেসের প্রথম দিন সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় কমিটির রাজনৈতিক প্রস্তাব উত্থাপনের মধ্য দিয়ে কংগ্রেসের মূলপর্ব শুরু হবে। পরের তিন দিন রাজনৈতিক প্রস্তাব, রাজনৈতিক-সাংগঠনিক রিপোর্ট, অডিট কমিটির রিপোর্ট উত্থাপন, সেগুলোর ওপর সারাদেশের প্রতিনিধি ও পর্যবেক্ষকদের বক্তব্য শেষে চূড়ান্ত প্রস্তাব ও প্রতিবেদন গ্রহণ করা হবে।

কংগ্রেসের দ্বিতীয় দিন ‘সাম্রারাজ্যবাদী হস্তক্ষেপ, মৌলবাদী হুমকি : প্রেক্ষিত দক্ষিণ এশিয়া’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সেমিনারে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. সুশান্ত দাস মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন। এছাড়া আলোচনায় অংশ নেবেন কংগ্রেসে যোগ দিতে আসা বিদেশি অতিথি এবং বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক এমএম আকাশ, সৈয়দ আবুল মকসুদসহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক।

কংগ্রেসের শেষ দিন ২৭ এপ্রিল নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি এবং সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হবে। এ সময় কংগ্রেস সফল করতে রাজশাহীবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

এমআই/সাকি