সরকারকে আগের প্রান্তিকের চেয়ে কম রাজস্ব দিয়েছে গ্রামীণফোন

GP_Robi_BLink_ATel

GP_Robi_BLink_ATelপর পর দ্বিতীয় প্রান্তিকে সরকারকে দেওয়া রাজস্বের ভাগ কমেছে গ্রামীণফোনের। গত ৩১ জুলাই সমাপ্ত প্রান্তিকে কোম্পানিটি সরকারকে রাজস্ব আয়ের ভাগ হিসেবে ১২৭ কোটি টাকা দিয়েছে। যা আগের প্রান্তিকে ছিল ১৩৫ কোটি টাকা। টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিকম রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তবে একই সময়ে অন্য দুই শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা ও বাংলালিংক আগের প্রান্তিকের চেয়ে বেশি রাজস্ব দিয়েছে সরকারকে। আলোচিত প্রান্তিকে রবি আজিয়াটা তার রাজস্ব আয় থেকে সরকারকে দিয়েছে ৬০ কোটি টাকা, যা আগের প্রান্তিকে ছিল ৫২ কোটি টাকা। অন্যদিকে বাংলালিংকের দেওয়া রাজস্ব ভাগের পরিমাণ ৫২ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ৫৩ কোটি টাকা হয়েছে। এ প্রান্তিকে এয়ারটেল রাজস্ব থাকে সরকারকে দিয়েছে ১৩ কোটি টাকা।

উল্লেখ, প্রতিটি মোবাইল ফোন অপারেটরকে তার রাজস্ব আয়ের সাড়ে ৫ শতাংশ ভাগ সরকারকে দিতে হয়। আর এ ভাগের ভিত্তিতে কোম্পানিগুলোর মোট রাজস্ব আয়ের একটি চিত্র পাওয়া সম্ভব।

আলোচিত প্রান্তিকে গ্রামীণ ফোন রাজস্বের ভাগ হিসেবে সরকারকে দিয়েছে ১২৭ কোটি টাকা। এ হিসেবে কোম্পানির মোট রাজস্বের পরিমাণ দাঁড়ায় ২ হাজার ৩০৯ কোটি টাকা। আগের প্রান্তিকে এ কোম্পানি ১৩৫ কোটি টাকা রাজস্ব দিয়েছিল। ওই সময় মোট রাজস্ব ছিল ২ হাজার ৪৫৪ কোটি টাকা। এ হিসেবে গ্রামীণফোনের রাজস্ব আয় কমার কথা।

তবে গত প্রান্তিকে গ্রামীণফোনের রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়েছে বলে জানা গেছে। আর লক্ষ্য পূরণের সাফল্যের জন্য আগামি ২৪ এপ্রিল কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিশেষ বোনাসও দেবে প্রতিষ্ঠানটি। গ্রামীণফোন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গত প্রান্তিকে রবি রাজস্ব হিসেবে সরকারকে দিয়েছে ৬০ কোটি টাকা। এ হিসেবে কোম্পানির মোট রাজস্ব দাঁড়ায় ১ হাজার ৯০ কোটি টাকা। আগের প্রান্তিকে কোম্পানি সরকারকে ৫৭ কোটি টাকা রাজস্ব দিয়েছিল।

বাংলালিংকের কাছ থেকে গত প্রান্তিকে সরকার রাজস্বের ভাগ পেয়েছে ৫৩ কোটি টাকা। এ হিসেবে কোম্পানিটির মোট রাজস্ব আয় হওয়ার কথা ৯৬৩ কোটি টাকা। আগের প্রান্তিকেও প্রতিষ্ঠানটির রাজস্ব প্রায় কাছাকাছি ছিল।