এএফসি এ্যাগ্রোর আইপিও লটারির ড্র চলছে

  • mukto rani
  • January 11, 2014
  • Comments Off on এএফসি এ্যাগ্রোর আইপিও লটারির ড্র চলছে
afc ipo lottery

AFC Argoরাজধানীর রমনায় অবস্থিত ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনের মিলনায়তনে সকাল ১০ টায় শুরু হয়েছে এএফসি এ্যাগ্রো বায়োটেক লিমিটেডের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) লটারির ড্র। অনুষ্ঠানে উপস্থিত রয়েছেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আফজাল।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত রয়েছেন-কোম্পানির পরিচালক জিয়া উদ্দিন ও  জুয়েল খান, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা প্রদীপ রায়, কোম্পানি সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমান।

এছাড়াও উপস্থিত রয়েছেন ইমপেরিয়্যাল ক্যাপিটাল লিমিটেডের সালাউদ্দিন সিকদার, সিগমা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের আমিনুল হক এবং ঢাকা স্টকএক্সচেঞ্জ, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ ও সিডিবিএল এর কর্মকর্তাবৃন্দ।

এএফসি এ্যাগ্রো বায়োটেক লিমিটেডের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে (আইপিও)৫৯ দশমিক ৯২ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। আইপিওতে ১২ কোটি টাকার শেয়ারের বিপরীতে বিভিন্ন ক্যাটাগরির বিনিয়োগকারীরা ৭১৯ কোটি ২৫ লাখ টাকার আবেদন জমা দিয়েছেন।

জানা যায়,আপিওতে এএফসি এগ্রো বায়োটেক এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করেছে। এর মধ্যে মোট শেয়ারের ১০ ভাগ বা এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার করে শেয়ার অনিবাসী বাংলাদেশী ও মিউচুয়াল ফান্ডগুলোর জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে। আর ২০ ভাগ বা দুই কোটি ৪০ লাখ শেয়ার সংরক্ষিত থাকবে ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের জন্য। বাকী ৬০ শতাংশ বা ৭২ লাখ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

আইপিওতে সাত কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ারের বিপরীতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আবেদন জমা পড়েছে ৪৯৩ কোটি টাকার। আর ক্ষতিগ্রস্থ বিনিয়োগকারীদের আবেদনের পরিমাণ হলো ৫৯ কোটি ৩৪ লাখ টাকার। অন্যদিকে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের আবেদনের পরিমাণ হলো ২৫ কোটি ১০ লাখ ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের আবেদনের পরিমাণ হলো ১৪১ কোটি ৮১ লাখ টাকার।

এর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যাণ্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের ৪৯৭তম সভায় এ কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়। এর পর গত বছরের আট ডিসেম্বর কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হয়। চলে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আর প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এ সুযোগ থাকে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

বিএসইসি’র তথ্য অনুযায়ী, কোম্পানিটির শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা হিসেবে আইপিওতে এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে। আর তার মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে সংগ্রহ করবে ১২ কোটি। আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থে কোম্পানিটি মেশিনারীজ ক্রয় এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৩ সমাপ্ত অর্ধ বার্ষিক (জানুয়ারী ১২-জুন ২০১৩) আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী এএফসি এ্যাগ্রো বায়োটেকের শেয়ার প্রতি আয় বা ইপিএস হয়েছে এক টাকা এক পয়সা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ বা এনএভি ১১ টাকা ১০ পয়সা।

এ কোম্পানির সম্পদ ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে ইমপেরিয়্যাল ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং সিগমা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

জিইউ/এমআরবি